লিউকিমিয়া কি ? লিউকিমিয়া রোগ নির্ণয় - লক্ষণ ও চিকিৎসা।

লিউকিমিয়া

লিউকিমিয়া কি? লিউকেমিয়া কাকে বলে?
ক্তে শ্বেত কণিকার (W.B.C) অস্বাভাবিক বৃদ্ধি এবং রক্তে অপরিণত শ্বেত কণিকার প্রবেশ হলে, তাকে লিউকিমিয়া রোগ বলে । রক্তের স্বাভাবিক শ্বেতকণিকা 7000 হতে বৃদ্ধি পেয়ে 60000 বা, এর থেকে অধিক হইলে নিউকিমিয়া রোগ হয়ে থাকে ।

লিউকিমিয়া কি ? লিউকিমিয়া রোগ নির্ণয় ,লক্ষণ , চিকিৎসা।

অনেকে ইহা কে রক্তের ক্যানসার বলে থাকেন। ইহা একটি মারাত্মক ব্যাধি । এই রোগের বিশেষ কোনো কারণ জানা যায় নাই। অল্প সময়ে এই রোগে আক্রান্ত ব্যক্তির মৃত্যু হতে পারে। বয়স্ক্ লোকের তুলনায়় শিশুরা এই রোগে বেশি ভুগে থাকে। এই রোগের সুচিকিৎসা অবশ্য কর্তব্য।

লিউকেমিয়া রোগের লক্ষণ

১ ৷ আক্রান্ত ব্যক্তির জ্বর হয় ।
২ । ঘুসঘুসে জ্বরের ফলে রোগী রক্তহীন হয় ।
৩ । গলা ব্যথা দাঁতের গোড়া নাক প্রভৃতি স্থান হইতে রক্তপাত হতে পারে বা হয় ।
৪ । রোগীর লিভার ও প্লীহা খুব বৃদ্ধি পায় ।

লিউকেমিয়া রোগ নির্ণয়

ম্যালেরিয়া, কালাজ্বর বা, Vit.B12 -এর অভাবে লিউকেমিয়া হয়ে থাকে তাদের এই রোগের লক্ষণ মিল থাকতে পারে। সেজন্য-

১। রোগীর রক্ত পরীক্ষা করতে হবে ।
২। এলডিহাইড টেস্ট বা ব্লাড ফিল্ম করলে অন্য রোগ হতে পৃথক করা সহজ হয়।

● সহজ কথা রক্ত পরীক্ষা করে  এই রোগ নির্ণয় করতে হয়।

চিকিৎসা

১। ইহার ফলপ্রসূ কোন চিকিৎসা নাই। তবে এমন পর্যায়ে রোগীকে অপরিপক্ক হাতে না রাখিয়া বড় হাসপাতালে চিকিৎসা করানো ভালো।
২। Blood Transfusion দিলে রোগী কে অল্পকিছুদিন বাঁচানো যায়।
৩। নিয়মিত ভাবে Tab. Prednisolone খেতে দিতে হবে।
৪। Inj. Crystalline penicillin বা Benzyl Penicillin ৮/১০ লাখ দিনে একবার।
৬। উপরোক্ত চিকিৎসায় কাজ না হলে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের তত্ত্বাবধানে রাখতে হবে।
Load comments

Comments